অনুসন্ধান

সতর্কতা: যেকোন ওয়েবসাইট বা নিউজপোর্টালের তথ্য বিশ্বাস না করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’র মত প্রতিষ্ঠানগুলোর ওয়েবসাইট থেকে তথ্য জানুন। নতুন করোনাভাইরাস বিষয়ক বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’র পোর্টালের ঠিকানা: www.who.int/emergencies/diseases/novel-coronavirus-2019

এই নতুন করোনাভাইরাস কি বয়স্কদেরই আক্রান্ত করে, নাকি তরুণরাও এই ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে?

যেকোনো বয়সের ব্যক্তিই নতুন করোনাভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত হতে পারে। তবে বয়স্ক ব্যক্তি এবং সেসব ব্যক্তি যাদের পূর্বের কোন রোগ রয়েছে (যেমন, এজমা, ডায়াবেটিস, হার্টের রোগ) তারা সহজেই গুরুতরভাবে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে থাকে। তাই সকল বয়সের ব্যক্তিরই হাতের ও শ্বাসনালী পরিচ্ছন্নতা ও সুস্বাস্থ্য ধরে রাখা গুরুত্বপূর্ণ।

নতুন করোনাভাইরাস প্রতিরোধক ও প্রতিষেধক হিসেবে এন্টিবায়োটিকস কি কার্যকরী?

না। এন্টিবায়োটিকস শুধুমাত্র ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে কাজ করে, ভাইরাসের বিরুদ্ধে না। এই নতুন করোনাভাইরাস একপ্রকার ভাইরাস তাই এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধক বা প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না।

তবে চিকিৎসারত অবস্থায়, আক্রান্ত রোগীকে এন্টিবায়োটিক প্রদান করা হতে পারে যাতে করে সে একইসাথে ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সংক্রামিত হয়ে না পড়ে।

কোন নির্দিষ্ট ঔষধ কি রয়েছে যা দিয়ে নতুন করোনাভাইরাস প্রতিরোধ বা চিকিৎসা করা যায়?

এখনো পর্যন্ত এই ভাইরাস প্রতিরোধ বা চিকিৎসা করতে কোন সুনির্দিষ্ট ঔষধ পরামর্শ দেওয়া হয়নি।

তবে, যারা এই ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়ে তাদের যথাযথ সেবা প্রদান করতে হবে এবং উপসর্গগুলোকে চিকিৎসা করতে হবে। এবং যারা গুরুতরভাবে আক্রান্ত তাদের বিশেষ সাপোর্টিভ কেয়ার প্রদান করতে হবে।

এই ভাইরাসের কিছু সুনির্দিষ্ট চিকিৎসা এখনো পরীক্ষামূলক অবস্থায় রয়েছে যা ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের মাধ্যমে পরখ করা হচ্ছে।

‘হ্যান্ড ড্রায়ার’ দ্বারা কি নতুন করোনাভাইরাস ধ্বংস হয়?

না। করোনাভাইরাস ধ্বংস করতে ‘হ্যান্ড ড্রায়ার’ কার্যকরী নয়। এই ভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষা করতে, এলকোহল-বেইজড হ্যান্ড রাব অথবা সাবান ও পানি দিয়ে আপনার হাত ঘনঘন ধুতে হবে। হাত ধোয়া শেষে, পেপার টাওউল অথবা উষ্ণ এয়ার ড্রায়ার দিয়ে হাত শোকাতে হবে।

আলট্রাভায়োলেট ল্যাম্প দ্বারা নতুন করোনাভাইরাস ধ্বংস করা যাবে?

হাত বা শরীরের অন্য যেকোনো অংশ জীবাণুমুক্ত করতে ইউভি ল্যাম্প ব্যবহার করা যাবে না। এতে ইউভি (UV) রেডিয়েশন চামড়ায় জালাতন সৃষ্টি করতে পারে।

নতুন করোনাভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত ব্যক্তিকে সনাক্ত করতে থার্মাল স্ক্যানার কতটা কার্যকর?

এমন ব্যক্তি যে করোনাভাইরাসে সংক্রামণের ফলে জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে (তথা, যার শারীরিক তাপমাত্রা স্বাভাবিক থেকে বেশী) তাকে সনাক্ত করতে থার্মাল স্ক্যানার কার্যকর। তবে, এর দ্বারা যারা সংক্রামিত হয়েছে কিন্তু এখনো জ্বরাক্রান্ত হননি, এমন ব্যক্তি সনাক্ত করা যায় না। কেননা, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ২ থেকে ১০ দিনে পর একজন ব্যক্তি অসুস্থ হয় এবং জ্বরাক্রান্ত হয়।

সমস্ত শরীরে এলকোহল বা ক্লোরিন স্প্রে করলে কি নতুন করোনাভাইরাস ধ্বংস হয়?

না। এলকোহল বা ক্লোরিন সারা শরীরে স্প্রে করলে তা সেসব ভাইরাস ধ্বংস করে না যেসব ইতিমধ্যে আপনার শরীরে প্রবেশ করেছে। এই ধরনের উপাদান পোষাকে অথবা চোখ বা মুখে প্রবেশ করলে তা ক্ষতিকারক হতে পারে না। কোন প্রকার তল (ফ্লোর, আসবাবপত্র ইত্যাদি) জীবাণুমুক্ত করতে এলকোহল বা ক্লোরিন কার্যকরী হতে পারে কিন্তু এসব ব্যবহারে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

চীন অথবা অতিমাত্রায় আক্রান্ত দেশ হতে আসা চিঠি কিংবা কোন প্রকার প্যাকেজ গ্রহণ করা কি নিরাপদ?

হ্যাঁ, এটি নিরাপদ। কোন ব্যক্তি এসব দেশ থেকে পাওয়া প্যাকেজ গ্রহণ করলে তা থেকে নতুন করোনাভাইরাস সংক্রামিত হওয়ার ঝুঁকি নাই। পূর্বের পরীক্ষা থেকে জানা যায়, করোনাভাইরাস কোন বস্তুতে (যেমন, চিঠি, প্যাকেটে) বেশীক্ষণ বেঁচে থাকতে পারে না।

ঘরে পোষ্য জীবজন্তু থেকে কি নতুন করোনাভাইরাস ছড়ায়?

বর্তমানে এমন কোন নজির পাওয়া যায়নি যাতে প্রমাণিত হয় যে ঘরের পোষা প্রাণী (যেমন কুকুর, বিড়াল) এই ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে। তবে, এসব পশুর সংস্পর্শে আসার পর সবসময়ই সাবান ও পানি দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলা উত্তম। এটি আপনাকে কিছু সাধারণ ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সংক্রামিত হওয়া থেকে সুরক্ষিত রাখবে।

নিউমোনিয়ার প্রতিষেধক কি নতুন করোনাভাইরাস হতে রক্ষা করে?

না। নিউমোনিয়ার প্রতিষেধক যেমন, pneumococcal vaccine অথবা Haemophilus influenza type B (Hib) vaccine নতুন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কাজ করে না। এই ভাইরাসটি নতুন ও ভিন্ন তাই এটির নিজস্ব প্রতিষেধক প্রয়োজন। গবেষকগণ এই ভাইরাসের জন্য প্রতিষেধক আবিষ্কারের চেষ্টা করে যাচ্ছে।

যদিও এসব ভ্যাকসিন নতুন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকর না হলেও শ্বাসনালী সংশ্লিষ্ট অসুখের জন্য এসব সুরক্ষা প্রদান করে থাকে।

স্যালাইন দ্বারা নিয়মিত নাক পরিষ্কার করলে কি তা করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ করে?

না। এমন কোন নজির পাওয়া যায় না যা দ্বারা প্রমাণিত হয় যে নিয়মিত স্যালাইন দ্বারা নাক পরিষ্কার করার ফলে কোন ব্যক্তি করোনাভাইরাস সংক্রমণ হতে রক্ষা পেয়েছে।

তবে কিছু সীমিত নজির রয়েছে যেখানে দেখা গিয়েছে, স্যালাইন দ্বারা নিয়মিত নাক পরিষ্কারের ফলে সাধারণ ঠাণ্ডা থেকে রোগী দ্রুত সুস্থতা লাভ করেছে। তবে স্যালাইন দ্বারা নাক পরিষ্কারের ফলে শ্বাসনালীর সংক্রামণ রোধ হওয়ার কোন নজির পাওয়া যায়নি।

রসুন খাওয়া কি নতুন করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সাহায্য করে?

রসুন একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য যেটির কিছু এন্টিমাইক্রোবিয়াল গুণাবলি রয়েছে। তবে, রসুন খাওয়ার ফলে এই ভাইরাস হতে রক্ষা পেয়েছে এমন কোন নজির বর্তমানের করোনাভাইরাসের প্রকোপ থেকে পাওয়া যায়নি।

তিলের তেল শরীরে মাখলে কি তা শরীরে করোনাভাইরাস প্রবেশ প্রতিরোধ করে?

না। তিলের তেল নতুন করোনাভাইরাস ধ্বংস করে না। কিছু রাসায়নিক জীবাণুনাশক রয়েছে যা কোন বস্তুর পৃষ্ঠে ব্যবহারে করোনাভাইরাস ধ্বংস করে। এর মধ্যে ব্লিচ, ক্লোরিন-বেইজড জীবাণুনাশক ইথার সল্ভেন্ট, ৭৫% ইথানল, প্যারাসেটিক এসিড ও ক্লরোফোম অন্যতম।

তবে, চামড়ায় কিংবা নাকের নিচে এসব উপাদান ব্যবহারে তা ভাইরাসের উপর খুব কম কিংবা একেবারেই কোন প্রকার প্রভাব বিস্তার করে না। উপরন্তু এসব রাসায়নিক দ্রব্য চামড়ায় ব্যবহার ক্ষতিকারক হতে পারে।

করোনাভাইরাসের ব্যাপারে অপতথ্য ঠেকাতে ও জনসাধারণকে সচেতন করতে আমাদের গ্রুপে যোগ দিন

পাদটীকা

তথ্যসূত্র

মন্তব্য

আমাদের ফেসবুকগ্রুপে আলোচনায় যুক্ত হোন।: www.facebook.com/groups/jaachai