অনুসন্ধান

মূল উৎপত্তি

২০ জুলাই এই সিসিটিভি ফুটেজটি বিভিন্ন ফেইসবুক পেইজ ও প্রোফাইল থেকে আপলোড করা হয়। ফুটেজটিতে দেখা যায় এক দল তলোয়ারধারী লোক একটি দোকান ঘেরাও করে একটি লোককে দোকানের ভিতর থেকে বের করে আনে এবং তলোয়ার দিয়ে তাকে কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে। ভিডিওটির বিবরণে বলা হয় যে গরুর মাংস বিক্রয় করার জন্যই লোকটিকে হত্যা করেছে হিন্দু জঙ্গি।

ফুটেজটি মূলত ভারতের মহারাষ্ট্রের ঢুলে শহরের একটি সন্ত্রাসী ঘটনার।[1] নিহতকে রফিকউদ্দিন শেখ নামে শনাক্ত করা হয়েছে। গরুর মাংস বিক্রেতা নন বরং রফিকউদ্দিন স্থানীয় একজন সন্ত্রাসী। সম্প্রতি সে জামিনে মুক্তি পায়। ঘটনার দিন, একটি চায়ের দোকানে চা পান করতে গেলে ১১ জন সন্ত্রাসী হকিস্টিক ও তলোয়ার নিয়ে তাকে আক্রমণ করে। প্রায় ২২ বার তাকে তলোয়ার দিয়ে কোপ দেওয়া হয় বলে পুলিশ রিপোর্টে বলা হয়। চাঁদাবাজি, হত্যা ও ধর্ষণসহ তার নামে ৩০টি কেস ছিলো বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।

ঘটনাটি, মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই সকালে ঘটে। পার্শ্ববর্তী একটি সিসিটিভি থেকে ফুটেজটি পুলিশ সংগ্রহ করার পর তা অনলাইনে ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়। যা পরবর্তীতে ২০ জুলাই বাংলাদেশের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টে প্রচার করা হয় ধর্মীয় সংঘাতের ঘটনা হিসেবে।

পাদটীকা

তথ্যসূত্র

  1. Anant R Zanane. "In Video Of Brutal Murder On Road, Man Struck 27 Times With Swords". NDTV. (জুলাই ২০, ২০১৭).
  2. Pratik Salunke. "Video of gang of 11 hacking Maharashtra man to death with swords goes viral". Hindustan Times. (জুলাই ২১, ২০১৭).
  3. "Gang rivalry spills on to Dhule streets, man hacked to death". The Hindu. (জুলাই ২১, ২০১৭).

মন্তব্য

আমাদের ফেসবুকগ্রুপে আলোচনায় যুক্ত হোন।: www.facebook.com/groups/jaachai

প্রচারিত মাধ্যম

কোন মিডিয়া অন্তর্ভুক্ত করা হয় নি? রিপোর্ট করুন